ঢাকা ০২:৪৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
ঝালকাঠির রাজাপুরে নও মুসলিম গৃহবধুর উপর হামলা

ঝালকাঠির রাজাপুরে নও মুসলিম গৃহবধুর উপর হামলা

ঝালকাঠির রাজাপুরে আমেনা আক্তার (২৬) নামে এক নও মুসলিম গৃহবধুর উপরে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ৩ নভেম্বর শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে রাজাপুর থেকে যাওয়ার পথে শুক্তাগর গ্রামে ফকির বাড়ির সামনে সুইচ গেট সংলগ্নে এই ঘটনা ঘটে। এ সময় আহত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে আমেনা আক্তারকে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে।

আহত আমেনা আক্তার জানায়, ৩ বছর আগে আমার স্বামী অপুর্ব কুমার পাল ইসলাম ধর্ম গ্রহন করে পরবর্তীতে আমিও ইসলাম সম্পর্কে জেনে আকৃষ্ট হয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করি। ধর্ম পরিবর্তনের পরে আমার স্বামী তার নাম অপুর্ব কুমার পাল থেকে আবদুল্লাহ আল মঈন এবং আমার নাম শেফালি দাস থেকে পরিবর্তন করে আমেনা আক্তার রাখি। কিন্তু তখন আমারা দেশের আইন মেনে কোর্টে এফিডেভিট করিনি। গত ৯ নভেম্বর আমি ঝালকাঠির সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে এফিডেভিট করি। আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহন করার কারনে আমার বাবার বাড়ির আত্মীয়দের সাথে সম্পর্কের অবনতি ঘটে। তখন অমরা ঢাকায় বসবাস করি এবং আমার স্বামী এখানে ব্যবসা করতো। আমাদের দাম্পত্য জীবনে দুইটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। এর কিছুদিন পরে জানতে পারিযে স্থানীয় এক জনের সাথে পরকিয়া সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে আমার স্বামী ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেছে। আমি সব জানতে পেরে তাকে এসব ছাড়ার জন্য চাপ দেই। তখন আমাকে ঢাকায় রেখে ব্যবসার সব কিছু বিক্রি করে আমাদের ৩ বছরের ছেটো ছেলেকে অমার কাছে রেখে ৬ বছরের বড় ছেলেকে নিয়ে আমার স্বামী এলাকায় চলে আসে। পরে আমি লোকজনের সহায়তায় এলাকায় এসে জানতে পারি ওই পরকিয়া প্রেমিকাকে নিয়ে ঝালকাঠিতে ভাড়া বাসায় থাকে আমারস্বামী। আমি সব হারিয়ে অবিভাবকহীন হয়ে মানুষের দুয়ারে ঘুড়ে বেড়াচ্ছি। আমাদের কলহলের বিষয়ে আমি কয়েকজন জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয়দের নিয়ে মীমাংসার চেষ্টা করি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার স্বামী অপুর্ব কুমার পাল ও তার পরকিয়া প্রেমিকা সহ ৫/৬ জন মিলে আমার উপর হামলা চালায়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত অপুর্ব কুমার পাল বলেন, আমার স্ত্রীর সাথে আমার পারিবারিক বিরোধ চলায় আমার ঘর থেকে টাকা পয়সা এবং স্বর্ণালংকার নিয়ে ২ মাস পুর্বে সে পালিয়ে যায়। আমি এ বিষয়ে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করলে তার সহযোগীদের নিয়ে আমাকে হয়রানি করতে তিনি এই ঘটনা সাজিয়েছে।

রাজাপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পুলক চন্দ্র রায় জানান, এ বিষয়ে কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

ঝালকাঠির রাজাপুরে নও মুসলিম গৃহবধুর উপর হামলা

ঝালকাঠির রাজাপুরে নও মুসলিম গৃহবধুর উপর হামলা

আপডেট সময় ০৩:২৭:২৬ অপরাহ্ন, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২২

ঝালকাঠির রাজাপুরে আমেনা আক্তার (২৬) নামে এক নও মুসলিম গৃহবধুর উপরে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ৩ নভেম্বর শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে রাজাপুর থেকে যাওয়ার পথে শুক্তাগর গ্রামে ফকির বাড়ির সামনে সুইচ গেট সংলগ্নে এই ঘটনা ঘটে। এ সময় আহত অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে আমেনা আক্তারকে রাজাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে।

আহত আমেনা আক্তার জানায়, ৩ বছর আগে আমার স্বামী অপুর্ব কুমার পাল ইসলাম ধর্ম গ্রহন করে পরবর্তীতে আমিও ইসলাম সম্পর্কে জেনে আকৃষ্ট হয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহন করি। ধর্ম পরিবর্তনের পরে আমার স্বামী তার নাম অপুর্ব কুমার পাল থেকে আবদুল্লাহ আল মঈন এবং আমার নাম শেফালি দাস থেকে পরিবর্তন করে আমেনা আক্তার রাখি। কিন্তু তখন আমারা দেশের আইন মেনে কোর্টে এফিডেভিট করিনি। গত ৯ নভেম্বর আমি ঝালকাঠির সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মাধ্যমে এফিডেভিট করি। আমি ইসলাম ধর্ম গ্রহন করার কারনে আমার বাবার বাড়ির আত্মীয়দের সাথে সম্পর্কের অবনতি ঘটে। তখন অমরা ঢাকায় বসবাস করি এবং আমার স্বামী এখানে ব্যবসা করতো। আমাদের দাম্পত্য জীবনে দুইটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। এর কিছুদিন পরে জানতে পারিযে স্থানীয় এক জনের সাথে পরকিয়া সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে আমার স্বামী ইসলাম ধর্ম গ্রহন করেছে। আমি সব জানতে পেরে তাকে এসব ছাড়ার জন্য চাপ দেই। তখন আমাকে ঢাকায় রেখে ব্যবসার সব কিছু বিক্রি করে আমাদের ৩ বছরের ছেটো ছেলেকে অমার কাছে রেখে ৬ বছরের বড় ছেলেকে নিয়ে আমার স্বামী এলাকায় চলে আসে। পরে আমি লোকজনের সহায়তায় এলাকায় এসে জানতে পারি ওই পরকিয়া প্রেমিকাকে নিয়ে ঝালকাঠিতে ভাড়া বাসায় থাকে আমারস্বামী। আমি সব হারিয়ে অবিভাবকহীন হয়ে মানুষের দুয়ারে ঘুড়ে বেড়াচ্ছি। আমাদের কলহলের বিষয়ে আমি কয়েকজন জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয়দের নিয়ে মীমাংসার চেষ্টা করি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে আমার স্বামী অপুর্ব কুমার পাল ও তার পরকিয়া প্রেমিকা সহ ৫/৬ জন মিলে আমার উপর হামলা চালায়।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত অপুর্ব কুমার পাল বলেন, আমার স্ত্রীর সাথে আমার পারিবারিক বিরোধ চলায় আমার ঘর থেকে টাকা পয়সা এবং স্বর্ণালংকার নিয়ে ২ মাস পুর্বে সে পালিয়ে যায়। আমি এ বিষয়ে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করলে তার সহযোগীদের নিয়ে আমাকে হয়রানি করতে তিনি এই ঘটনা সাজিয়েছে।

রাজাপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পুলক চন্দ্র রায় জানান, এ বিষয়ে কোনো লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।