ঢাকা ০১:১৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সালথায় পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে হত্যা মামলার আসামি ছিনতাই

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৯:১৮:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪
  • ২০ বার পড়া হয়েছে

আকাশ সাহাঃ সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ

ফরিদপুরের সালথায় পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে মানবপাচার ও হত্যা মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত এক আসামিকে ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার (১ মার্চ) দুপুরে উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়নের মাঝারদিয়া গ্রামের পশ্চিমপাড়া ঈদগাহ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ছিনিয়ে নেওয়ার আসামির নাম মো. তুরাপ মোল্যা (৪৫)। তিনি মাঝারদিয়া গ্রামের মৃত আনারদ্দিন মোল্যার ছেলে।

মাঝারদিয়া গ্রামের সাবেক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মো. ফারুক হোসেন জানান, তুরাপ একজন আদম ব্যবসায়ী। ২০২৩ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি মাঝারদিয়া গ্রামের নুর আলম নামে এক ব্যক্তিকে ইতালি পাঠানোর কথা বলে লিবিয়ায় নিয়ে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়। ওই মামলার প্রধান আসামি তুরাপ মোল্যা। একপর্যায় ওই মামলায় তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারিপরোয়ানা জারি করে আদালত।

তিনি আরও জানান, শুক্রবার জুম্মার নামাজের সময় ঈদগাহ মসজিদের সামনে থেকে সালথা থানার এ এস আই নাজমুল হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম তুরাপকে গ্রেপ্তার করে। কিন্ত তুরাপের বড় ভাই হানিফ মোল্যা, কিরাম মোল্যা, ভাতিজা রহিম মোল্যা ও রিয়াজ মোল্যা পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে তাকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ সময় তুরাপের লোকজন দেশীয় অস্ত্র ঢাল-কাতরা নিয়েও বের হয়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে।

এ বিষয় সালথা থানার এ এস আই নাজমুল হোসেন বলেন, আমাদের উপর কোনো হামলা হয়নি। তুরাপকে গ্রেপ্তারের পর তাঁর পরিবারের লোকজন এসে তুরাপকেই ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। পরে তুরাপ ওঠে দৌড়িয়ে পালিয়ে যায়।

ফরিদপুর সহকারি পুলিশ সুপার (সার্কেল নগরকান্দা) মো. আসাদুজ্জামান শাকিল বলেন, বিষয়টি আমি জানার পর আমি ঘটনাস্থলে যাচ্ছি। ইতিমধ্যে ওই আসামিকে ধরতে পুলিশের কয়েকটি টিম মাঠে নেমেছে। আশা করি দ্রুত সময়ের মধ্যেই তাঁকে গ্রেপ্তার করতে পারব।

রাজবাড়ীর পাংশায় প্রান্তিক জনকল্যাণ সংস্থা কতৃক আয়োজিত ঈদ পূর্ণমিলন

সালথায় পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে হত্যা মামলার আসামি ছিনতাই

আপডেট সময় ০৯:১৮:৩০ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ মার্চ ২০২৪

আকাশ সাহাঃ সালথা (ফরিদপুর) প্রতিনিধিঃ

ফরিদপুরের সালথায় পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে মানবপাচার ও হত্যা মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত এক আসামিকে ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার (১ মার্চ) দুপুরে উপজেলার মাঝারদিয়া ইউনিয়নের মাঝারদিয়া গ্রামের পশ্চিমপাড়া ঈদগাহ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ছিনিয়ে নেওয়ার আসামির নাম মো. তুরাপ মোল্যা (৪৫)। তিনি মাঝারদিয়া গ্রামের মৃত আনারদ্দিন মোল্যার ছেলে।

মাঝারদিয়া গ্রামের সাবেক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মো. ফারুক হোসেন জানান, তুরাপ একজন আদম ব্যবসায়ী। ২০২৩ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি মাঝারদিয়া গ্রামের নুর আলম নামে এক ব্যক্তিকে ইতালি পাঠানোর কথা বলে লিবিয়ায় নিয়ে নির্যাতন করে হত্যা করা হয়। ওই মামলার প্রধান আসামি তুরাপ মোল্যা। একপর্যায় ওই মামলায় তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারিপরোয়ানা জারি করে আদালত।

তিনি আরও জানান, শুক্রবার জুম্মার নামাজের সময় ঈদগাহ মসজিদের সামনে থেকে সালথা থানার এ এস আই নাজমুল হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম তুরাপকে গ্রেপ্তার করে। কিন্ত তুরাপের বড় ভাই হানিফ মোল্যা, কিরাম মোল্যা, ভাতিজা রহিম মোল্যা ও রিয়াজ মোল্যা পুলিশের উপর হামলা চালিয়ে তাকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ সময় তুরাপের লোকজন দেশীয় অস্ত্র ঢাল-কাতরা নিয়েও বের হয়। পরে অতিরিক্ত পুলিশ এসে পরিস্থিতি শান্ত করে।

এ বিষয় সালথা থানার এ এস আই নাজমুল হোসেন বলেন, আমাদের উপর কোনো হামলা হয়নি। তুরাপকে গ্রেপ্তারের পর তাঁর পরিবারের লোকজন এসে তুরাপকেই ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। পরে তুরাপ ওঠে দৌড়িয়ে পালিয়ে যায়।

ফরিদপুর সহকারি পুলিশ সুপার (সার্কেল নগরকান্দা) মো. আসাদুজ্জামান শাকিল বলেন, বিষয়টি আমি জানার পর আমি ঘটনাস্থলে যাচ্ছি। ইতিমধ্যে ওই আসামিকে ধরতে পুলিশের কয়েকটি টিম মাঠে নেমেছে। আশা করি দ্রুত সময়ের মধ্যেই তাঁকে গ্রেপ্তার করতে পারব।