ঢাকা ১১:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

মালয়েশিয়ায় ৩৩ বাংলাদেশিসহ আটক ১০৩

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৯:৪৬:৩২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০২৩
  • ২৫ বার পড়া হয়েছে

মালয়েশিয়ায় চলমান বৈধকরণ কর্মসূচি আরটিকে ২.০ প্রোগ্রামের অপব্যবহারের অভিযোগে ৩৩ বাংলাদেশিসহ ১০৩ জনকে আটক করেছে দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগ।

বৃহস্পতিবার (১৪ ডিসেম্বর) জহুর রাজ্যের সেডেনাকের একটি নির্মাণ সাইট ও ক্লুয়াংয়ের একটি কারখানা এলাকায় যৌথ অভিযানে তাদের আটক করা হয়।

জহুর ইমিগ্রেশন বিভাগের পরিচালক বাহারউদ্দিন তাহির জানান, বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রীয় এনফোর্সমেন্ট ডিভিশনের কর্মকর্তা এবং সুলতান আবু বকর কমপ্লেক্সের কর্মকর্তাদের সহায়তায় প্রথম অভিযান শুরু হয় ক্লুয়াংয়ের একটি কারখানা এলাকায়। সেখানে থেকে ২৩ জন ভারতীয়, ২১ জন বাংলাদেশি, দুজন শ্রীলঙ্কান ও একজন পাকিস্তানি নাগরিক আটক হন। তাদের সবার বয়স ২২ থেকে ৫৬ বছরের মধ্যে।

এছাড়া দ্বিতীয় অভিযানটি একইদিন বিকেল ৩টার দিকে সেডেনাকের একটি নির্মাণ সাইটে পরিচালনা করা হয়। যেখানে ১৩ জন চীনা, ১২ জন পাকিস্তানি, ১২ জন বাংলাদেশি, ৮ জন ইন্দোনেশিয়ান, ৭ জন মিয়ানমার, ৩ জন ভারতীয় এবং একজন নেপালের নাগরিককে আটক করা হয়। আটককৃতদের বয়স ২১ থেকে ৪৮ বছরের মধ্যে।

তাদের সবাইকে বৈধ ট্রাভেল ডকুমেন্ট দেখাতে ব্যর্থ হওয়া, অতিরিক্ত অবস্থান করা, সোশ্যাল ভিজিট পাসের অপব্যবহার এবং নির্ধারিত পাসের শর্তাবলী লঙ্ঘনের সন্দেহে তাদের আটক করা হয়েছে।

বাহারউদ্দিন আরও জানান, ইমিগ্রেশন রেগুলেশন ১৯৬৩ এর ধারা ৬(১)(গ), ১৫(১)(গ), রেগুলেশন ১১(৭)(এ) এবং রেগুলেশন ৩৯(বি) অনুযায়ী মামলাটি তদন্ত করা হয়েছে। আটককৃতদের আরও তদন্ত ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সেতিয়া ট্রপিকা ইমিগ্রেশন ডিপোতে রাখা হয়েছে।

একই সঙ্গে আগামী ৩১ ডিসেম্বর বৈধকরণ প্রোগ্রাম আরটিকে ২.০ প্রোগ্রামটি যোগ্য বিদেশি অভিবাসী কর্মীদের নিবন্ধনের সুযোগ কাজে লাগানোর জন্য অভিবাসন বিভাগ থেকে নিয়োগকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। তাছাড়া বৈধ কাগজপত্র ছাড়া বিদেশি কর্মীদের নিয়োগ দিলে নিয়োগকর্তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

জনপ্রিয় সংবাদ

দাঁড়ি বড় রাখায় যুবককে পেটালেন ইউপি চেয়ারম্যান ও তার ছেলে!

মালয়েশিয়ায় ৩৩ বাংলাদেশিসহ আটক ১০৩

আপডেট সময় ০৯:৪৬:৩২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০২৩

মালয়েশিয়ায় চলমান বৈধকরণ কর্মসূচি আরটিকে ২.০ প্রোগ্রামের অপব্যবহারের অভিযোগে ৩৩ বাংলাদেশিসহ ১০৩ জনকে আটক করেছে দেশটির ইমিগ্রেশন বিভাগ।

বৃহস্পতিবার (১৪ ডিসেম্বর) জহুর রাজ্যের সেডেনাকের একটি নির্মাণ সাইট ও ক্লুয়াংয়ের একটি কারখানা এলাকায় যৌথ অভিযানে তাদের আটক করা হয়।

জহুর ইমিগ্রেশন বিভাগের পরিচালক বাহারউদ্দিন তাহির জানান, বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রীয় এনফোর্সমেন্ট ডিভিশনের কর্মকর্তা এবং সুলতান আবু বকর কমপ্লেক্সের কর্মকর্তাদের সহায়তায় প্রথম অভিযান শুরু হয় ক্লুয়াংয়ের একটি কারখানা এলাকায়। সেখানে থেকে ২৩ জন ভারতীয়, ২১ জন বাংলাদেশি, দুজন শ্রীলঙ্কান ও একজন পাকিস্তানি নাগরিক আটক হন। তাদের সবার বয়স ২২ থেকে ৫৬ বছরের মধ্যে।

এছাড়া দ্বিতীয় অভিযানটি একইদিন বিকেল ৩টার দিকে সেডেনাকের একটি নির্মাণ সাইটে পরিচালনা করা হয়। যেখানে ১৩ জন চীনা, ১২ জন পাকিস্তানি, ১২ জন বাংলাদেশি, ৮ জন ইন্দোনেশিয়ান, ৭ জন মিয়ানমার, ৩ জন ভারতীয় এবং একজন নেপালের নাগরিককে আটক করা হয়। আটককৃতদের বয়স ২১ থেকে ৪৮ বছরের মধ্যে।

তাদের সবাইকে বৈধ ট্রাভেল ডকুমেন্ট দেখাতে ব্যর্থ হওয়া, অতিরিক্ত অবস্থান করা, সোশ্যাল ভিজিট পাসের অপব্যবহার এবং নির্ধারিত পাসের শর্তাবলী লঙ্ঘনের সন্দেহে তাদের আটক করা হয়েছে।

বাহারউদ্দিন আরও জানান, ইমিগ্রেশন রেগুলেশন ১৯৬৩ এর ধারা ৬(১)(গ), ১৫(১)(গ), রেগুলেশন ১১(৭)(এ) এবং রেগুলেশন ৩৯(বি) অনুযায়ী মামলাটি তদন্ত করা হয়েছে। আটককৃতদের আরও তদন্ত ও জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সেতিয়া ট্রপিকা ইমিগ্রেশন ডিপোতে রাখা হয়েছে।

একই সঙ্গে আগামী ৩১ ডিসেম্বর বৈধকরণ প্রোগ্রাম আরটিকে ২.০ প্রোগ্রামটি যোগ্য বিদেশি অভিবাসী কর্মীদের নিবন্ধনের সুযোগ কাজে লাগানোর জন্য অভিবাসন বিভাগ থেকে নিয়োগকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। তাছাড়া বৈধ কাগজপত্র ছাড়া বিদেশি কর্মীদের নিয়োগ দিলে নিয়োগকর্তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।