ঢাকা ০১:১৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ৬ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রেমের প্রতারণার কালই অর্ধগলিত লাশ, হত্যার রহস্য উদঘাটন ও আসামী গ্রেফতার

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৬:০১:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৮ অক্টোবর ২০২৩
  • ৪৬ বার পড়া হয়েছে

গত ৫ অক্টোবর কালুখালী থানাধীন কাওয়াখোলা বাবু শিকদার এর ধান ক্ষেতের ভিতর একজন অজ্ঞাতনামা মহিলার অর্ধগলিত মৃতদেহ পাওয়া যায়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। মৃতদেহটির পরিচয় শনাক্তর জন্য কোন ধরনের তথ্য উপাত্ত ছিল না। স্থানীয়ভাবে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ, মাইকিং, সংবাদপত্র ও সোশাল মিডিয়ায় ব্যাপক প্রচারণা চালানো সত্ত্বেও ভিকটিম এর পরিচয় পাওয়া যায় না।

ক্লু-লেস হত্যাকান্ডটি বিস্তারিত ও নিবির তদন্তর মাধ্যমে রাজবাড়ী জেলা পুলিশের একটি চৌকস দল হত্যার মূল রহস্য উদঘাটন পূর্বক মামলার ঘটনায় জড়িত আসামী মোঃ আঃ রহিম মন্ডল (৫৬), পিতা-মৃত তাছের আলী মন্ডল, সাং-জাগির কয়া, থানা-পাংশা, জেলা রাজবাড়ীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। গ্রেফতারকৃতকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায় ভিকটিম ও আসামী অনুমান ০৩ বছর পূর্বে একই সঙ্গে কাতারে ছিল। কাতারে থাকা অবস্থায় ভিকটিম, আসামীর কাছ থেকে বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ২,১০,০০০ টাকা ধার নেয়। উভয়ই দেশে ফিরে আসার পর ভিকটিম আসামীর পাওনা টাকা ফেরত দিতে তাল বাহানা করলে আসামী ভিকটিমকে হত্যার পরিকল্পনা করে। অতঃপর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ৩০-০৯-২০২৩ খ্রিঃ রাত্র অনুমান ০৯:৩০ ঘটিকার সময় আসামী মোঃ আঃ রহিম মন্ডল ভিকটিমকে ভাঙ্গা, ফরিদপুর হতে পাংশা থানাধীন সোবহান মন্ডলের ধান ক্ষেতে এনে পরিকল্পনা মোতাবেক ওড়না গলায় পেচিয়ে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে।

এসংক্রান্তে পুলিশ সুপারের কার্যালয়, রাজবাড়ীতে সংবাদ সম্মেলন করেন জনাব মোঃ রেজাউল করিম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, (প্রশাসন ও অর্থ)। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন জনাব মুকিত সরকার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার,(ক্রইম এন্ড অপস্), জনাব সুমন কুমার সাহা, সহকারী পুলিশ সুপার,(পাংশা সার্কেল), অফিসার ইনচার্জ, কালুখালী থানা, রাজবাড়ী সহ প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীবৃন্দ।

রাজবাড়ীর পাংশায় প্রান্তিক জনকল্যাণ সংস্থা কতৃক আয়োজিত ঈদ পূর্ণমিলন

প্রেমের প্রতারণার কালই অর্ধগলিত লাশ, হত্যার রহস্য উদঘাটন ও আসামী গ্রেফতার

আপডেট সময় ০৬:০১:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৮ অক্টোবর ২০২৩

গত ৫ অক্টোবর কালুখালী থানাধীন কাওয়াখোলা বাবু শিকদার এর ধান ক্ষেতের ভিতর একজন অজ্ঞাতনামা মহিলার অর্ধগলিত মৃতদেহ পাওয়া যায়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। মৃতদেহটির পরিচয় শনাক্তর জন্য কোন ধরনের তথ্য উপাত্ত ছিল না। স্থানীয়ভাবে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ, মাইকিং, সংবাদপত্র ও সোশাল মিডিয়ায় ব্যাপক প্রচারণা চালানো সত্ত্বেও ভিকটিম এর পরিচয় পাওয়া যায় না।

ক্লু-লেস হত্যাকান্ডটি বিস্তারিত ও নিবির তদন্তর মাধ্যমে রাজবাড়ী জেলা পুলিশের একটি চৌকস দল হত্যার মূল রহস্য উদঘাটন পূর্বক মামলার ঘটনায় জড়িত আসামী মোঃ আঃ রহিম মন্ডল (৫৬), পিতা-মৃত তাছের আলী মন্ডল, সাং-জাগির কয়া, থানা-পাংশা, জেলা রাজবাড়ীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়। গ্রেফতারকৃতকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায় ভিকটিম ও আসামী অনুমান ০৩ বছর পূর্বে একই সঙ্গে কাতারে ছিল। কাতারে থাকা অবস্থায় ভিকটিম, আসামীর কাছ থেকে বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ২,১০,০০০ টাকা ধার নেয়। উভয়ই দেশে ফিরে আসার পর ভিকটিম আসামীর পাওনা টাকা ফেরত দিতে তাল বাহানা করলে আসামী ভিকটিমকে হত্যার পরিকল্পনা করে। অতঃপর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ৩০-০৯-২০২৩ খ্রিঃ রাত্র অনুমান ০৯:৩০ ঘটিকার সময় আসামী মোঃ আঃ রহিম মন্ডল ভিকটিমকে ভাঙ্গা, ফরিদপুর হতে পাংশা থানাধীন সোবহান মন্ডলের ধান ক্ষেতে এনে পরিকল্পনা মোতাবেক ওড়না গলায় পেচিয়ে শ্বাস রোধ করে হত্যা করে।

এসংক্রান্তে পুলিশ সুপারের কার্যালয়, রাজবাড়ীতে সংবাদ সম্মেলন করেন জনাব মোঃ রেজাউল করিম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, (প্রশাসন ও অর্থ)। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন জনাব মুকিত সরকার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার,(ক্রইম এন্ড অপস্), জনাব সুমন কুমার সাহা, সহকারী পুলিশ সুপার,(পাংশা সার্কেল), অফিসার ইনচার্জ, কালুখালী থানা, রাজবাড়ী সহ প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সংবাদকর্মীবৃন্দ।