ঢাকা ০৭:৪১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজবাড়ী-১ আসনের ভোটারদের প্রত্যাশা পুরন করতে চাই-আঃ মান্নান মুসল্লী

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৫:১৯:১৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • ৬২ বার পড়া হয়েছে

রাজবাড়ী প্রতিনিধি, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজবাড়ী -১ (সদর ও গোয়ালন্দ) আসনে বিশ্বজাকের মন্জিল কর্মী গ্রুপ থেকে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মান্নান মুসল্লী নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবেন বলে তিনি জানিয়েছেন। এ উপলক্ষে তার নির্বাচনী এলাকায় প্রচার প্রচারনী হিসাবে বিভিন্ন সড়কের মোড়ে মোড়ে নির্বাচনী তোরণ, ব্যানার, ফেষ্টুনে ছেয়ে ফেলেছেন, যা মানুষের চোখে পড়ার মতো। এ ছাড়াও তিনি শহর থেকে গ্রাম, গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে তার পদচারণা লক্ষ্য করার মতো। ডেঙ্গু মহামারীতে তিনি বসে নেই। ডেঙ্গু প্রতিরোধে বিভিন্ন সচেতনামূলক ব্যানার ফেষ্টুন টাঙিয়েছেন সড়কের প্রধান প্রধান পয়েন্টে। শুধু ব্যানার, ফেষ্টুন এবং পোস্টার টাঙিয়েই ক্ষ্যান্ত হননি। তিনি মশার কয়েল নিয়ে ছুটছেন বিভিন্ন ইউনিয়ন, ওয়ার্ড, গ্রাম এবং পাড়া মহল্লায়। এতে তিনি ব্যাপক সাড়াও পেয়েছেন গরীব, মজুর, কৃষক, জেলে, তাতী সহ বিভিন্ন পেশার মানুষের কাছে। রাত বিরাতে ছুটছেন বিভিন্ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স বা হাসপাতালে ভর্তিরত অসহায় রোগীদের কাছে। খোঁজ খবর নিচ্ছেন রোগীরা কেমন আছেন। খাদ্য ও ঔষধপত্র আছে কিনা। তিনি সেখানে খালী হাতে যান না, বিভিন্ন প্রকারের খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেন রোগীর দ্বারে দ্বারে। কোন স্থানে দুঃর্ঘটনার খবর পেলে সবার আগেই তিনি পৌঁছেযান এবং সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। এতে বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের প্রশংসায় ভেসে বেড়াচ্ছেন তিনি। কেউ কেউ মান্নান মুসল্লীকে আদর করে এমপি হিসাবেও সম্মোধন করে থাকেন, তাতে তিনি কোন রকম বিরক্তবোধ করেন না, বরং তাদেরকে বলেন আমার জন্য দোয়া করবেন আপনারা, যাতে করে আপনাদের মুখ উজ্জ্বল করতে পারি। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তিনি বিপুল ভোটের ব্যবধানে এমপি হিসাবে বিজয় লাভ করবেন বলে তিনি আশাবাদী। তিনি বলেন আমি নিজে না খেয়ে অন্যকে খাওয়াতে বেশী সাচ্ছন্দবোধ করি। তিনি বলেন আমি রাজবাড়ী সদরের মুলঘর ইউনিয়নের কয়েক দফায় একজন জনপ্রিয় নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলাম। কিন্তু ২০২১ এর নির্বাচনে অল্প ভোটের ব্যাবধানে আমাকে পরাজিত করে। তিনি বলেন আমি চেয়ারম্যান থাকা কালীন নিজের টাকা দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের নামে জমি ক্রয় করে দিয়েছি। মুসল্লী ফাউন্ডেশন নামে একটি সেবামুলক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছি।

আর এই ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে অসহায় দুঃস্থ প্রতিবন্ধীদের মাঝে স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও ত্রান সামগ্রী বিতরন, অসহায় মানুষের চিকিৎসা সেবা সহায়তা ও দিক নির্দেশনা প্রদান করা, চক্ষু রোগী ও অন্ধ রোগীদের চিকিৎসা সেবার সহায়তা করা, অসহসয় প্রতিবন্ধীদের মাঝে মাসিক ভিত্তিক অর্থ সহায়তা করা, ছেলে মেয়ে কর্তৃক অবহেলিত মা বাবার সার্বিক সাহায্য ও সহায়তা প্রদান করা, অসহায় সাংস্কৃতিক শিল্পীদের আর্থিক সহায়তা প্রদান করা, ঝড়ে পড়া শিশুদের শিক্ষার ব্যবস্থা করা, মেধাবী ছাত্র ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদান করা, ধর্মীয় উৎসবে সাহায্য প্রদান, এবং হত দরিদ্রদের মাঝে শীত বস্ত্র বিতরণ করা হয়ে থাকে।
রাজবাড়ী-১ আসনের জনগণের দৃষ্টি জুড়ে মান্নান মুসল্লী একজন সৎ যোগ্য এবং দায়িত্বশীল রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব। জনগণের ধারণা আঃ মান্নান মুসল্লী এমপি নির্বাচিত হলে এলাকার মানুষের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, রাস্তাঘাট উন্নয়ন, নারীবান্ধব শিল্প কারখানা গড়ে তোলাসহ বেকার যুবকদের উন্নত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ জন বল সৃষ্টি করবেন। সেই সাথে সামাজিক অবক্ষয় ও অপরাধ মুলক কর্মকান্ড বন্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন। পাশাপাশি বাল্যবিয়ে মাদকের অপব্যবহার ও যৌতুক বন্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিবেন বলে জানান। আঃ মান্নান মুসল্লী দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাকে জানান, আমি অবহেলিত রাজবাড়ী সদর ও গোয়ালন্দ বাসীর উন্নয়নে কাজ করে যেতে চাই। আমাদের বন্ধন হবে সম্প্রতির বন্ধন। গরীব দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য আমার রাজনীতিতে আশা। তিনি বলেন বেকার যুবকেরা যেন সমাজের বোঝা না হয় এর জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা। এই এলাকার মানুষ যাতে করে শান্তিতে বসবাস করতে পারে, এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়ন হলে মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন হবে।

মোঃ সুজন খন্দকার
রাজবাড়ী প্রতিনিধি।

রাজবাড়ীর পাংশায় প্রান্তিক জনকল্যাণ সংস্থা কতৃক আয়োজিত ঈদ পূর্ণমিলন

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজবাড়ী-১ আসনের ভোটারদের প্রত্যাশা পুরন করতে চাই-আঃ মান্নান মুসল্লী

আপডেট সময় ০৫:১৯:১৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

রাজবাড়ী প্রতিনিধি, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজবাড়ী -১ (সদর ও গোয়ালন্দ) আসনে বিশ্বজাকের মন্জিল কর্মী গ্রুপ থেকে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মান্নান মুসল্লী নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবেন বলে তিনি জানিয়েছেন। এ উপলক্ষে তার নির্বাচনী এলাকায় প্রচার প্রচারনী হিসাবে বিভিন্ন সড়কের মোড়ে মোড়ে নির্বাচনী তোরণ, ব্যানার, ফেষ্টুনে ছেয়ে ফেলেছেন, যা মানুষের চোখে পড়ার মতো। এ ছাড়াও তিনি শহর থেকে গ্রাম, গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে তার পদচারণা লক্ষ্য করার মতো। ডেঙ্গু মহামারীতে তিনি বসে নেই। ডেঙ্গু প্রতিরোধে বিভিন্ন সচেতনামূলক ব্যানার ফেষ্টুন টাঙিয়েছেন সড়কের প্রধান প্রধান পয়েন্টে। শুধু ব্যানার, ফেষ্টুন এবং পোস্টার টাঙিয়েই ক্ষ্যান্ত হননি। তিনি মশার কয়েল নিয়ে ছুটছেন বিভিন্ন ইউনিয়ন, ওয়ার্ড, গ্রাম এবং পাড়া মহল্লায়। এতে তিনি ব্যাপক সাড়াও পেয়েছেন গরীব, মজুর, কৃষক, জেলে, তাতী সহ বিভিন্ন পেশার মানুষের কাছে। রাত বিরাতে ছুটছেন বিভিন্ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স বা হাসপাতালে ভর্তিরত অসহায় রোগীদের কাছে। খোঁজ খবর নিচ্ছেন রোগীরা কেমন আছেন। খাদ্য ও ঔষধপত্র আছে কিনা। তিনি সেখানে খালী হাতে যান না, বিভিন্ন প্রকারের খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেন রোগীর দ্বারে দ্বারে। কোন স্থানে দুঃর্ঘটনার খবর পেলে সবার আগেই তিনি পৌঁছেযান এবং সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন। এতে বিভিন্ন শ্রেণীর মানুষের প্রশংসায় ভেসে বেড়াচ্ছেন তিনি। কেউ কেউ মান্নান মুসল্লীকে আদর করে এমপি হিসাবেও সম্মোধন করে থাকেন, তাতে তিনি কোন রকম বিরক্তবোধ করেন না, বরং তাদেরকে বলেন আমার জন্য দোয়া করবেন আপনারা, যাতে করে আপনাদের মুখ উজ্জ্বল করতে পারি। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে তিনি বিপুল ভোটের ব্যবধানে এমপি হিসাবে বিজয় লাভ করবেন বলে তিনি আশাবাদী। তিনি বলেন আমি নিজে না খেয়ে অন্যকে খাওয়াতে বেশী সাচ্ছন্দবোধ করি। তিনি বলেন আমি রাজবাড়ী সদরের মুলঘর ইউনিয়নের কয়েক দফায় একজন জনপ্রিয় নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলাম। কিন্তু ২০২১ এর নির্বাচনে অল্প ভোটের ব্যাবধানে আমাকে পরাজিত করে। তিনি বলেন আমি চেয়ারম্যান থাকা কালীন নিজের টাকা দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের নামে জমি ক্রয় করে দিয়েছি। মুসল্লী ফাউন্ডেশন নামে একটি সেবামুলক প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছি।

আর এই ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে অসহায় দুঃস্থ প্রতিবন্ধীদের মাঝে স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও ত্রান সামগ্রী বিতরন, অসহায় মানুষের চিকিৎসা সেবা সহায়তা ও দিক নির্দেশনা প্রদান করা, চক্ষু রোগী ও অন্ধ রোগীদের চিকিৎসা সেবার সহায়তা করা, অসহসয় প্রতিবন্ধীদের মাঝে মাসিক ভিত্তিক অর্থ সহায়তা করা, ছেলে মেয়ে কর্তৃক অবহেলিত মা বাবার সার্বিক সাহায্য ও সহায়তা প্রদান করা, অসহায় সাংস্কৃতিক শিল্পীদের আর্থিক সহায়তা প্রদান করা, ঝড়ে পড়া শিশুদের শিক্ষার ব্যবস্থা করা, মেধাবী ছাত্র ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদান করা, ধর্মীয় উৎসবে সাহায্য প্রদান, এবং হত দরিদ্রদের মাঝে শীত বস্ত্র বিতরণ করা হয়ে থাকে।
রাজবাড়ী-১ আসনের জনগণের দৃষ্টি জুড়ে মান্নান মুসল্লী একজন সৎ যোগ্য এবং দায়িত্বশীল রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব। জনগণের ধারণা আঃ মান্নান মুসল্লী এমপি নির্বাচিত হলে এলাকার মানুষের জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, রাস্তাঘাট উন্নয়ন, নারীবান্ধব শিল্প কারখানা গড়ে তোলাসহ বেকার যুবকদের উন্নত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ জন বল সৃষ্টি করবেন। সেই সাথে সামাজিক অবক্ষয় ও অপরাধ মুলক কর্মকান্ড বন্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন। পাশাপাশি বাল্যবিয়ে মাদকের অপব্যবহার ও যৌতুক বন্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিবেন বলে জানান। আঃ মান্নান মুসল্লী দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার পত্রিকাকে জানান, আমি অবহেলিত রাজবাড়ী সদর ও গোয়ালন্দ বাসীর উন্নয়নে কাজ করে যেতে চাই। আমাদের বন্ধন হবে সম্প্রতির বন্ধন। গরীব দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য আমার রাজনীতিতে আশা। তিনি বলেন বেকার যুবকেরা যেন সমাজের বোঝা না হয় এর জন্য কর্মসংস্থান সৃষ্টি করা। এই এলাকার মানুষ যাতে করে শান্তিতে বসবাস করতে পারে, এলাকার রাস্তাঘাটের উন্নয়ন হলে মানুষের ভাগ্যের উন্নয়ন হবে।

মোঃ সুজন খন্দকার
রাজবাড়ী প্রতিনিধি।