ঢাকা ০৩:০৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
বখাটের যন্ত্রণায় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যার অভিযোগ

বখাটের যন্ত্রণায় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যার অভিযোগ

ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় বখাটের যন্ত্রণায় ৮ম শ্রেণির ছাত্রী নাসরিন আক্তার (১৩) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।
গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার উত্তর আউরা গ্রামের মোঃ নাসির হাওলাদারের মেয়ে নাসরিন আক্তার ঘরের বারিন্দায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

নাসরিন কাঠালিয়া সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী। একওই গ্রামের শাহজালাল আকনের বখাটে ছেলে সৈকত আকন প্রায়ই স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে নাসরিনকে বিভিন্ন ভাবে বিরক্ত করত।

নিহত নাসরিনের মা চম্পা বেগম জানান, আমার মেয়ে নাসরিন কাঠালিয়া সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণিতে পড়তো, স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে আমার মেয়েকে সৈকত প্রাইয় বাজে কথা বলে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করত। এ নিয়ে মেয়েটা সব সময় মানুষিক ভাবে চিন্তিত থাকত। আজ বিকালে আমি আমার পিতার বাড়ী বড় কাঠালিয়া যাই, নাসরিন এ সময় ঘরে একা ছিলো। সন্ধ্যার দিকে বাড়ীতে এসে পিছনের বারান্দায় আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে নাসরিনকে ঝুলতে দেখতে পাই। আমার ডাক-চিৎকার শুনে বাড়ীর লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে।

কাঠালিয়া সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মিজানুর রহমান জানান, ৮ম শ্রেণির পড়ুয়া নাসরিন আক্তার শান্তসৃষ্ট ও নম্রভদ্র ছাত্রী ছিলো। আমাদের কাছে উত্যক্ত করার কোন ঘটনা সে কখনও জানায়নি বা অভিযোগ করেনি।

কাঠালিয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ড সদস্য (মেম্বর) নুরুল আলম মিলু জানান, সৈকত নাসরিনকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে ডিস্টার্ব করত। ঘটনার দিন মেয়েটির মা চম্পা বেগম তার বাবার বাড়ী ছিলো। ঘর ফাঁকা পেয়ে সে আত্মহত্যা করে।

কাঠালিয়া থানার পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ময়না তদন্তের জন্য লাশ থানায় নিয়ে আসেন।

জনপ্রিয় সংবাদ

সালথায় কৃষককে কুপিয়ে হত্যায় পাঁচ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

বখাটের যন্ত্রণায় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যার অভিযোগ

বখাটের যন্ত্রণায় স্কুলছাত্রীর আত্মহত্যার অভিযোগ

আপডেট সময় ০৭:৫১:২৪ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৪ অগাস্ট ২০২২

ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় বখাটের যন্ত্রণায় ৮ম শ্রেণির ছাত্রী নাসরিন আক্তার (১৩) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।
গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার উত্তর আউরা গ্রামের মোঃ নাসির হাওলাদারের মেয়ে নাসরিন আক্তার ঘরের বারিন্দায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে।

নাসরিন কাঠালিয়া সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী। একওই গ্রামের শাহজালাল আকনের বখাটে ছেলে সৈকত আকন প্রায়ই স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে নাসরিনকে বিভিন্ন ভাবে বিরক্ত করত।

নিহত নাসরিনের মা চম্পা বেগম জানান, আমার মেয়ে নাসরিন কাঠালিয়া সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণিতে পড়তো, স্কুলে আসা-যাওয়ার পথে আমার মেয়েকে সৈকত প্রাইয় বাজে কথা বলে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করত। এ নিয়ে মেয়েটা সব সময় মানুষিক ভাবে চিন্তিত থাকত। আজ বিকালে আমি আমার পিতার বাড়ী বড় কাঠালিয়া যাই, নাসরিন এ সময় ঘরে একা ছিলো। সন্ধ্যার দিকে বাড়ীতে এসে পিছনের বারান্দায় আড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে নাসরিনকে ঝুলতে দেখতে পাই। আমার ডাক-চিৎকার শুনে বাড়ীর লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করে।

কাঠালিয়া সরকারি পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মিজানুর রহমান জানান, ৮ম শ্রেণির পড়ুয়া নাসরিন আক্তার শান্তসৃষ্ট ও নম্রভদ্র ছাত্রী ছিলো। আমাদের কাছে উত্যক্ত করার কোন ঘটনা সে কখনও জানায়নি বা অভিযোগ করেনি।

কাঠালিয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ড সদস্য (মেম্বর) নুরুল আলম মিলু জানান, সৈকত নাসরিনকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে ডিস্টার্ব করত। ঘটনার দিন মেয়েটির মা চম্পা বেগম তার বাবার বাড়ী ছিলো। ঘর ফাঁকা পেয়ে সে আত্মহত্যা করে।

কাঠালিয়া থানার পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং ময়না তদন্তের জন্য লাশ থানায় নিয়ে আসেন।