ঢাকা ১২:২৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গোয়ালন্দে আগুনে পুড়ে নিঃস্ব পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৭:৫৪:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৪
  • ১৭ বার পড়া হয়েছে

মোঃ সুজন খন্দকার,রাজবাড়ী প্রতিনিধি।।রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার উজানচর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের নালিয়াপাড়া গ্রামের শাজাহান নামক একজন খেটে খাওয়া দিন মুজুরের বাড়ীতে, তার গোয়ালঘর থেকে আগ্নি কান্ডের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার ২৬শে জানুয়ারি গভীর রাতে এই ঘটনা ঘটে।

এতে মুহুর্তের মধ্যে আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায় শাজাহান এর গোয়ালঘর, বসবাস করার ঘর ও রান্নাঘর। সেই সাথে তার একটি লক্ষ টাকার গরু ও ছাগল পুড়ে মারা যায় । সংবাদ পেয়ে সাথে সাথে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে থেকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটিকে ১০ দিনের খাবার হিসেবে চাল, ডাল, তেল ও লবন সহ সব ধরনের খাদ্য সামগ্রী প্রদান করা হয়। এছাড়াও নগদ ৭৫০০ টাকা এবং ৩টি কম্বল দেয়া হয়েছে। একই সাথে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মহোদয় তার নিজস্ব তহবিল হতে ১০ হাজার টাকা ক্ষতিগ্রস্ত ব্যাক্তির হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।

এবিষয়ে গোয়ালন্দ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা “জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র” এর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, গতকাল রাতে অগ্নি কান্ডের খবর পাওয়ার সাথে সাথে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি টিম আর্থিক সহ খাদ্য সহয়তা নিয়ে হাজির হয়েছে অগ্নিে কান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটির বাড়ীতে। তাছাড়াও পরবর্তীতে তার ক্ষয়ক্ষতি নিরুপন করে,তাকে সরকার হতে টিন ও ঘর তুলে দেয়ার ব্যাবস্থা করা হবে বলে, আশ্বাস দেওয়া হয়েছে উপজেলার প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

মোঃ সুজন খন্দকার
রাজবাড়ী প্রতিনিধি।

ট্যাগস :
জনপ্রিয় সংবাদ

দাঁড়ি বড় রাখায় যুবককে পেটালেন ইউপি চেয়ারম্যান ও তার ছেলে!

গোয়ালন্দে আগুনে পুড়ে নিঃস্ব পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র

আপডেট সময় ০৭:৫৪:২২ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২৪

মোঃ সুজন খন্দকার,রাজবাড়ী প্রতিনিধি।।রাজবাড়ীর গোয়ালন্দ উপজেলার উজানচর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের নালিয়াপাড়া গ্রামের শাজাহান নামক একজন খেটে খাওয়া দিন মুজুরের বাড়ীতে, তার গোয়ালঘর থেকে আগ্নি কান্ডের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার ২৬শে জানুয়ারি গভীর রাতে এই ঘটনা ঘটে।

এতে মুহুর্তের মধ্যে আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে যায় শাজাহান এর গোয়ালঘর, বসবাস করার ঘর ও রান্নাঘর। সেই সাথে তার একটি লক্ষ টাকার গরু ও ছাগল পুড়ে মারা যায় । সংবাদ পেয়ে সাথে সাথে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে থেকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটিকে ১০ দিনের খাবার হিসেবে চাল, ডাল, তেল ও লবন সহ সব ধরনের খাদ্য সামগ্রী প্রদান করা হয়। এছাড়াও নগদ ৭৫০০ টাকা এবং ৩টি কম্বল দেয়া হয়েছে। একই সাথে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মহোদয় তার নিজস্ব তহবিল হতে ১০ হাজার টাকা ক্ষতিগ্রস্ত ব্যাক্তির হাতে তুলে দেয়া হয়েছে।

এবিষয়ে গোয়ালন্দ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা “জ্যোতি বিকাশ চন্দ্র” এর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, গতকাল রাতে অগ্নি কান্ডের খবর পাওয়ার সাথে সাথে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটি টিম আর্থিক সহ খাদ্য সহয়তা নিয়ে হাজির হয়েছে অগ্নিে কান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারটির বাড়ীতে। তাছাড়াও পরবর্তীতে তার ক্ষয়ক্ষতি নিরুপন করে,তাকে সরকার হতে টিন ও ঘর তুলে দেয়ার ব্যাবস্থা করা হবে বলে, আশ্বাস দেওয়া হয়েছে উপজেলার প্রশাসনের পক্ষ থেকে।

মোঃ সুজন খন্দকার
রাজবাড়ী প্রতিনিধি।