ঢাকা ০৫:৩০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় সরকারি কালর্ভাটের ইট টেন্ডার ছাড়াই ক্লাবের নামে নিয়ে বিক্রি

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ১০:২৫:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ এপ্রিল ২০২৩
  • ১৫৩ বার পড়া হয়েছে

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলার জয়খালী গ্রামের সুপির পোল নামের এলাকার সরকারি একটি পুরানো কালর্ভাট এর প্রায় ১০ হাজার ইট জয়খালী একটি কৃষি ক্লাবের নাম ভাঙ্গীয়ে এলাকাবাসীর কাছে বিক্রি করার প্রমান সরেজমিনে গিয়ে পাওয়া গেছে।

জানাগেছে, মোঃ মাহজামানের পুত্র মোঃ মিরাজ ও বীর মুক্তি যোদ্ধা মোঃ আবুল হোসেনের পুত্র মোঃ ইমন লেবার দিয়ে জয়খালী গ্রামে একটি রকারি পুরানো কালর্ভাটের দুই পাড়ের প্রায় ১০ হাজার ইট নিয়ে এলাকার মোঃ শাহজামান, মোঃ হুমায়েন চকিদার, মোঃ স্বপন, মোঃ নাইম, মোঃ মন্নান ও মোঃ নুরহুদাসহ নাম না জানা আরো অনেকের কাছে বিক্রি করেন। এলাকাবাসীর অভিযোগ সরকারি মালামাল টেন্ডার ছাড়া কি ভাবে নিয়েছন আমাদের জানানেই। অভিযোগকারী মোঃ ইমনের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবুল হোসেন কাঁঠালিয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে জয়খালি কৃষি ক্লাব সংস্কার করার জন্য পুরানো কালর্ভাটের মালামাল (ইট) নেয়ার জন্য আবেদন করেন, পরে চেয়ারম্যান মোঃ মাহমুদুল হক নাহিদ শিকদার, অত্র পরিষদে রেজুলেশন করে ইট নেয়ার অনুমতিদেন।
এ ব্যাপারে কাঠালিয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মাহমুদুল হক নাহিদ সিকদকরের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, জয়খালী গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবুল হোসেন জয়কালী কৃষিক্লাব সংস্কার করার জন্য পুরানো কালর্ভাটের ইট চেয়ে আবেদন করলে পরিষদে রেজুলেশন করে তাদেরকে ইট নেয়ার জন্য বলা হয় কিন্তুু বিক্রির জন্য ইট দেয়া হয়নি, যদি ইট বিক্রি করে থাকেন তাদেরকে জরিমানা করা হবে। ঘটনার সময়ে এলাকাবাসী মোবাইলের মাধ্যমে কাঠালিয়া উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার কাছে জানালে তিনি সাথে সাথে মহল্লাদারকে সরেজমিনে পাঠালেও কোন সুফল পায়নি এলাকাবাসী। এ ব্যাপারে কাঠালিয়া উপজেলা নিবার্হী অফিসার মোঃ মিজানুর রহমানের কাছে জানতে চেয়ে মোবাইল করলেও তিনি মোবাইল রিসিভ করেনি।

এইচ এম নাসির উদ্দিন আকাশ।

ট্যাগস :

রাজবাড়ীর পাংশায় প্রান্তিক জনকল্যাণ সংস্থা কতৃক আয়োজিত ঈদ পূর্ণমিলন

ঝালকাঠির কাঠালিয়ায় সরকারি কালর্ভাটের ইট টেন্ডার ছাড়াই ক্লাবের নামে নিয়ে বিক্রি

আপডেট সময় ১০:২৫:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ এপ্রিল ২০২৩

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলার জয়খালী গ্রামের সুপির পোল নামের এলাকার সরকারি একটি পুরানো কালর্ভাট এর প্রায় ১০ হাজার ইট জয়খালী একটি কৃষি ক্লাবের নাম ভাঙ্গীয়ে এলাকাবাসীর কাছে বিক্রি করার প্রমান সরেজমিনে গিয়ে পাওয়া গেছে।

জানাগেছে, মোঃ মাহজামানের পুত্র মোঃ মিরাজ ও বীর মুক্তি যোদ্ধা মোঃ আবুল হোসেনের পুত্র মোঃ ইমন লেবার দিয়ে জয়খালী গ্রামে একটি রকারি পুরানো কালর্ভাটের দুই পাড়ের প্রায় ১০ হাজার ইট নিয়ে এলাকার মোঃ শাহজামান, মোঃ হুমায়েন চকিদার, মোঃ স্বপন, মোঃ নাইম, মোঃ মন্নান ও মোঃ নুরহুদাসহ নাম না জানা আরো অনেকের কাছে বিক্রি করেন। এলাকাবাসীর অভিযোগ সরকারি মালামাল টেন্ডার ছাড়া কি ভাবে নিয়েছন আমাদের জানানেই। অভিযোগকারী মোঃ ইমনের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবুল হোসেন কাঁঠালিয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে জয়খালি কৃষি ক্লাব সংস্কার করার জন্য পুরানো কালর্ভাটের মালামাল (ইট) নেয়ার জন্য আবেদন করেন, পরে চেয়ারম্যান মোঃ মাহমুদুল হক নাহিদ শিকদার, অত্র পরিষদে রেজুলেশন করে ইট নেয়ার অনুমতিদেন।
এ ব্যাপারে কাঠালিয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মাহমুদুল হক নাহিদ সিকদকরের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, জয়খালী গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আবুল হোসেন জয়কালী কৃষিক্লাব সংস্কার করার জন্য পুরানো কালর্ভাটের ইট চেয়ে আবেদন করলে পরিষদে রেজুলেশন করে তাদেরকে ইট নেয়ার জন্য বলা হয় কিন্তুু বিক্রির জন্য ইট দেয়া হয়নি, যদি ইট বিক্রি করে থাকেন তাদেরকে জরিমানা করা হবে। ঘটনার সময়ে এলাকাবাসী মোবাইলের মাধ্যমে কাঠালিয়া উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তার কাছে জানালে তিনি সাথে সাথে মহল্লাদারকে সরেজমিনে পাঠালেও কোন সুফল পায়নি এলাকাবাসী। এ ব্যাপারে কাঠালিয়া উপজেলা নিবার্হী অফিসার মোঃ মিজানুর রহমানের কাছে জানতে চেয়ে মোবাইল করলেও তিনি মোবাইল রিসিভ করেনি।

এইচ এম নাসির উদ্দিন আকাশ।