ঢাকা ০৯:৫৯ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চার দিনেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ কলেজ ছাত্র সোহেল’র

  • নিজস্ব সংবাদ :
  • আপডেট সময় ০৪:১৩:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২২
  • ১৩৬ বার পড়া হয়েছে

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ গত ২৭ ডিসেম্বর মঙ্গলবার বিকালে তুরাগ থানাদীন হরিরামপুর ইউনিয়নের রানভোলা এলাকা থেকে সোহেল ২২ নিখোঁজ হয়। নিখোঁজ সোহেল ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলার জীবনদাসকাঠীর আইউব আলী খানের ছেলে। তিনি সৈয়দ হাতেমআলী কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। তিনি ঢাকায় মোবাইল ব্যকিং নগদের মার্কেটএ চাকরি করত।

সোহেলের বড় ভাই সুমনের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রতিদিনের মতোই সোহেল মঙ্গলবার তার কর্মক্ষেত্রে কাজে যায় কিন্তু মঙ্গলবার বিকাল ৫ টা থেকে তার কোন সন্ধান পায়নি ও তার মুঠোফোন বন্ধ পাই। তারপর সম্ভব্য সকল জায়গায় খোঁজাখুঁজি করি কিন্তু কোথাও সন্ধান পায়নি। তারপর ২৯ তারিখে তুরাগ থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেন সোহেলের বড় ভাই সুমন। যাহার জি. ডি. নং ১৮০৬.

এইচ এম নাসির উদ্দিন আকাশ
ঝালকাঠি প্রতিনিধি।

রাজবাড়ীর পাংশায় প্রান্তিক জনকল্যাণ সংস্থা কতৃক আয়োজিত ঈদ পূর্ণমিলন

চার দিনেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ কলেজ ছাত্র সোহেল’র

আপডেট সময় ০৪:১৩:৪২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২২

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ গত ২৭ ডিসেম্বর মঙ্গলবার বিকালে তুরাগ থানাদীন হরিরামপুর ইউনিয়নের রানভোলা এলাকা থেকে সোহেল ২২ নিখোঁজ হয়। নিখোঁজ সোহেল ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর উপজেলার জীবনদাসকাঠীর আইউব আলী খানের ছেলে। তিনি সৈয়দ হাতেমআলী কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। তিনি ঢাকায় মোবাইল ব্যকিং নগদের মার্কেটএ চাকরি করত।

সোহেলের বড় ভাই সুমনের সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রতিদিনের মতোই সোহেল মঙ্গলবার তার কর্মক্ষেত্রে কাজে যায় কিন্তু মঙ্গলবার বিকাল ৫ টা থেকে তার কোন সন্ধান পায়নি ও তার মুঠোফোন বন্ধ পাই। তারপর সম্ভব্য সকল জায়গায় খোঁজাখুঁজি করি কিন্তু কোথাও সন্ধান পায়নি। তারপর ২৯ তারিখে তুরাগ থানায় একটি সাধারন ডায়েরি করেন সোহেলের বড় ভাই সুমন। যাহার জি. ডি. নং ১৮০৬.

এইচ এম নাসির উদ্দিন আকাশ
ঝালকাঠি প্রতিনিধি।