ঢাকা ১১:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
ঝালকাঠিতে শালিসে ডেকে নিয়ে নারীসহ চারজনকে পেটানোর অভিযোগ

ঝালকাঠিতে শালিসে ডেকে নিয়ে নারীসহ চারজনকে পেটানোর অভিযোগ

ঝালকাঠির রাজাপুরে শালিসে ডেকে নিয়ে নারী সহ একই পরিবারের চারজনকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার শুক্তাগর ইউনিয়নের পিংড়ি বাড়ইবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

আহতরা হলো উপজেলার পিংড়ি বাড়ইবাড়ি এলাকার মৃত আবতাব আলী সরদারের ছেলে মো. নুর আলম সরদার (৬০) তার স্ত্রী কাওসার বেগম (৫৫) ও দুই ছেলে মো. রিপন সরদার (২৬), হাফেজ মো. আব্দুল্লাহ (২০)।

আহত মো. রিপন সরদার জানায়, জমিজমা নিয়ে তার চাচাদের সাথে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। ঐ বিরোধ নিয়ে স্থানীয় ভাবে শালিস মিমাংশা চলছে। ঘটনার দিন শনিবার বেলা ১১টার দিকে শালিস মিমাংশার কথা বলে রিপনসহ তার বাবা-মা ও ছোট ভাই আব্দুল্লাহকে তার চাচা কবির সরদার বাড়িতে ডেকে নেয়। এসময় তাদের আপন চার চাচা কবির সরদার, আব্দুল হক সরদার, ফেরদাউস সরদার, মিলন সরদার ও তাদের ছেলে-মেয়েসহ ১০/১২ জন মিলে শালিসদারদের সামনে রুমের মধ্যে আটকে রেখে একই পরিবারের চারজনকে পিটিয়ে আহত করে। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কাওসার বেগমকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাকিদের ভর্তি করেন।

অভিযুক্ত মিলন সরদার জানায়, আমার বড় ভাই আব্দুল হক সরদাররের শরীরে প্রথমে আঘাত করায় আমরা তাদেরকে মারদর করেছি।

রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ পুলক চন্দ্র রায় বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ট্যাগস :

রাজবাড়ীর পাংশায় প্রান্তিক জনকল্যাণ সংস্থা কতৃক আয়োজিত ঈদ পূর্ণমিলন

ঝালকাঠিতে শালিসে ডেকে নিয়ে নারীসহ চারজনকে পেটানোর অভিযোগ

ঝালকাঠিতে শালিসে ডেকে নিয়ে নারীসহ চারজনকে পেটানোর অভিযোগ

আপডেট সময় ০৭:২৪:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১ অক্টোবর ২০২২

ঝালকাঠির রাজাপুরে শালিসে ডেকে নিয়ে নারী সহ একই পরিবারের চারজনকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার শুক্তাগর ইউনিয়নের পিংড়ি বাড়ইবাড়ি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

আহতরা হলো উপজেলার পিংড়ি বাড়ইবাড়ি এলাকার মৃত আবতাব আলী সরদারের ছেলে মো. নুর আলম সরদার (৬০) তার স্ত্রী কাওসার বেগম (৫৫) ও দুই ছেলে মো. রিপন সরদার (২৬), হাফেজ মো. আব্দুল্লাহ (২০)।

আহত মো. রিপন সরদার জানায়, জমিজমা নিয়ে তার চাচাদের সাথে দীর্ঘদিন থেকে বিরোধ চলে আসছে। ঐ বিরোধ নিয়ে স্থানীয় ভাবে শালিস মিমাংশা চলছে। ঘটনার দিন শনিবার বেলা ১১টার দিকে শালিস মিমাংশার কথা বলে রিপনসহ তার বাবা-মা ও ছোট ভাই আব্দুল্লাহকে তার চাচা কবির সরদার বাড়িতে ডেকে নেয়। এসময় তাদের আপন চার চাচা কবির সরদার, আব্দুল হক সরদার, ফেরদাউস সরদার, মিলন সরদার ও তাদের ছেলে-মেয়েসহ ১০/১২ জন মিলে শালিসদারদের সামনে রুমের মধ্যে আটকে রেখে একই পরিবারের চারজনকে পিটিয়ে আহত করে। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক কাওসার বেগমকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাকিদের ভর্তি করেন।

অভিযুক্ত মিলন সরদার জানায়, আমার বড় ভাই আব্দুল হক সরদাররের শরীরে প্রথমে আঘাত করায় আমরা তাদেরকে মারদর করেছি।

রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ পুলক চন্দ্র রায় বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।